নিজস্ব প্রতিবেদক : সারাদেশের পৌরসভার প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনের উত্তাপ। পড়ন্ত বিকেলে চায়ের দোকানে খেলার মাঠে নির্বাচন নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। তফসিল ঘোষণা না হলেও রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভা নির্বাচনে সম্ভাব্য মেয়র পদপ্রার্থীরা আগাম প্রচারণায় নেমে পড়েছেন। প্রার্থীরা তাদের ব্যানার, ফেস্টুন, পোষ্টার লাগিয়ে দিয়েছে দেওয়ালে দেওয়ালে। শোডাউন করে তাদের প্রার্থীতা জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে ভোটারদের মাঝে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগীতা শুরু হয়েছে, কার আগে কে ভোটারদের সাথে প্রথম কুশল বিনিময় করতে পারে। তবে দলীয়ভাবে মনোনয়ন পেলে এর মাত্রা আরো কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

শুধু তাই নয় দলীয় অবদান রাখায় ও পৌর এলাকার উন্নয়ন করবে এমন মেয়র পদ প্রার্থীদের উভয় দল মনোনয়ন দিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ দিবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভায় আওয়ামী লীগের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী বর্তমান মেয়র ও উপজলো আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুজ্জামান শহীদ।

অপরদিকে দুর্নীতি ও অবহেলিত কেশরহাট পৌরসভাকে মডেল পৌরসভা গঠনের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দল তাকে মনোনয়ন দিবে বলে আশা করছেন পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর রহমান শাহিন।

এছাড়াও আওয়ামী লীগের মননোয়ন প্রত্যাশী কেশরহাট পৌরসভা সেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বুলবুল আহমেদ। তিনি মনে করেন, দল যদি তাকে মননোয়ন দেয় তাহলে রাজশাহী বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবে এই তরুণ নেতা।

অন্যদিকে দায়িত্বশীল ও যোগ্য প্রার্থী সংকটে ভুগছে বিএনপি। তবে কেশরহাট পৌর নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থীদের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে এগিয়ে রয়েছেন প্রতিষ্ঠাকালীন কেশরহাট পৌরসভার মেয়র বিএনপির আলাউদ্দিন আলো।

এদিকে বিগত দিনে ওয়ার্ডে যে উন্নয়ন করেছে সেই উন্নয়নের ন্যায় পৌর এলাকায় বিস্তৃত করতে জেলা বিএনপির সদস্য ও সাবেক কাউন্সিলর এনামুল হক দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক খুশবর রহমান মনে করছেন, শিক্ষিত-যুব সমাজ বান্ধব নেতা হিসেবে বিরোধী দলে থেকেও দলকে সুসংগঠিত রাখার লক্ষ্যে বিএনপি তাকে মনোনয়ন দিবে।

এছাড়াও পারিবারিক ভাবে মোহনপুর উপজেলায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতার সন্তান হিসেবে এবং কেশরহাট পৌরসভায় বিএনপির বিভিন্ন আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত রাখায় ও আগামীতে আরো শক্তিশালী করার লক্ষে দলীয় মননোয়ন প্রত্যাশা করেছেন রাজশাহী জেলার যুগ্ম সম্পাদক ও কেশরহাট পৌর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মসিউর রহমান।

একটি উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে